যেভাবে চিনবেন ভুয়া ওয়েবসাইট

মাহমুদুল হাসান খান (হাসান লাইভ)। Mahmudul Hasan Khan (HasanLive) যেভাবে চিনবেন ভুয়া ওয়েবসাইট
প্রতিকী ছবিঃ ওয়েবসাইট

প্রায় সব বয়সের মানুষই ইন্টারনেটের সঙ্গে যুক্ত। অধিকাংশ মানুষই সামাজিক মাধ্যম ও ইন্টারনেটে সক্রিয় থাকে। সারাদিনই কোনো না কোনো প্রয়োজনে ইন্টারনেট ব্যবহার করতে হয়। প্রয়োজনের স্বার্থেই বিভিন্ন ওয়েবসাইটে ঢু মারতে হয়।

ব্যাংকিং, লেনদেন, অনলাইনে কেনাকাটা, বিল পরিশোধ কিংবা অফিস-আদালত, তার সবটাই এখন ওয়েবসাইটের মাধ্যমে সম্পাদিত হয়। এসব ওয়েবসাইট যারা ভিজিট করেন তারা জানেন ওয়েবসাইটে লগইনের সময় ই-মেইল ও পাসওয়ার্ড ও অন্নান্য ব্যক্তিগত তথ্য প্রদান করতে হয়। যা মূলত ভোক্তা বা ভিজিটরের বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধা বা অফার কিংবা বিজ্ঞাপনের জন্য নেয়া হয়। কিন্তু অসাবধানতায় এ গুরুত্বপূর্ণ তথ্য চলে যেতে পারে কোন অসাধু ব্যক্তি বা হ্যাকারের কাছে।

ভুয়া ওয়েবসাইটের মাধ্যমে অসাধু হ্যকাররা প্রতারণার ফাঁদ পেতে রাখে। এসব ওয়েবসাইট দেখতে অনেকটা আসল ওয়েবসাইটের মতোই। খুব কম লোক রয়েছেন যারা নকল ওয়েবসাইট চিনতে পারেন। আর এতেই তৈরি হয় নানা সমস্যা। বিভিন্ন নির্ভরযোগ্য ওয়েবসাইট ঘেটে ভুয়া ওয়েবসাইট চেনার কয়েকটি উপায় তুলে ধরা হল।

অ্যাড্রেস লিংক চেক করা: যে ওয়েবসাইটটিতে ভিজিট করছেন সেটির অ্যাড্রেস লিংক চেক করুন। এতে যদি ‘এইচটিটিপিএস (HTTPS)’ থাকে তাহলে এটিকে অধিকাংশ ক্ষেত্রেই নিরাপদ বিবেচনা করা যায়। একে এসএসএল বলা হয়। এতে ‘এস’ থাকা নিরাপদ বোঝায়। আর ‘এস’ না থাকলে নির্ভরযোগ্য লিংক নাহেলে ওই ওয়েবসাইট ভিজিট করা থেকে বিরত থাকা উচিত।

অ্যাবাউট এবং কনটাক্ট পেজ চেক করা : কোনো ওয়েবসাইট নিয়ে যদি সন্দেহের সৃষ্টি হয় তাহলে সেটির অ্যাবাউট এবং কনটাক্ট পাতা দেখে নিন। যদি এখানে ওয়েবসাইট ও তাদের কর্মীদের সম্পর্কে তথ্য পান তবে তাদের লিংকডইন ও অন্যান্য সামাজিক মাধ্যম হ্যান্ডলগুলো যাচাই করে নিন।

ওয়েবসাইট ল্যাংগুয়েজ ও ভাষাগত ত্রুটি চেক করা : আপনি যে ওয়েবসাইটে ভিজিট করে আছেন তার ভাষার দিকে খেয়াল করুন। ভাষার ব্যাকরণে কোনো ত্রুটি রয়েছে কিনা কিংবা কোনো শব্দ অনুপস্থিত বা বাক্য অসম্পূর্ণ কিনা খেয়াল করুন। ত্রুটিযুক্ত হলে অবশ্যই এর নির্ভরযোগ্যতা নিয়ে সার্চ করুন এবং ব্রাউজ করা থেকে বিরত থাকুন।

মাত্রাতিরিক্ত পপ-আপ এ্যাড : কোনো ওয়েবসাইটে ব্রাউজের সময় যদি প্রচুর পপ-আপ এ্যাড দেখতে পান, তাহলে এসব এ্যাডের কোনোটিতে ক্লিক করবেন না। আপনার ব্রাউজারটি তাৎক্ষণিক বন্ধ করে দিন। যদি এমনটি না করেন তাহলে হ্যাক হওয়ার সম্ভাবনা থাকে।

অনলাইন ওয়েবসাইট চেকার ব্যবহার : বর্তমানে অনলাইনে ওয়েবসাইট চেক করার জন্য বিভিন্ন ওয়েবসাইট রয়েছে। যেখানে ওয়েবসাইটের সত্যতা এবং সাইট সম্পর্কে বিস্তারিত জানা যায়। সেখান থেকে জেনে নিন, আপনার ভিজিট করা সাইটটি আসল, নাকি নকল।

Leave a Comment

Comments

No comments yet. Why don’t you start the discussion?

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।